শিরোনাম :

প্রচ্ছদ » সম্পাদকীয়

ইসলামের টানে বিশ্ব ইজতেমায়

শনি, ০৯ জানুয়ারী'২০১৬, ১:৩০ পূর্বাহ্ন


ইসলামের টানে বিশ্ব ইজতেমায়  
ফুলের পাঁচটি গুণ আছে যার কারণে ফুলকে সবাই ভালবাসে। ফুল দেখতে সুন্দর, গন্ধ ভাল, মধু আসে, ফুল থেকে ফল হয় ও আকার সুন্দর। ঠিক তেমনি মানুষের মধ্যে যদি মেহনত করে পাঁচটি গুণ আনা যায় তাহলে আল্লাহ্ও মানুষ তাকে ভালবাসে। মানুষের এ পাঁচটি গুণ হচ্ছে ইমান ঠিক রাখা, লেনদেন সঠিক করা, নবীর সুন্নত পালন করা, ইবাদত করা ও আখলাক ঠিক রাখা। এ গুণগুলো এমনি হয় না, মেহনত করে জিন্দেগিতে আনতে হয়। তাই এতো কষ্ট ও সাধনা করে এ সমস্ত গুণ জিন্দেগিতে আনার জন্যই তিন দিনের তাবলীগ জামায়াতের বিশ্ব ইজতেমায় আসা। এ পাঁচটি গুণের জন্য মানুষ আল্লাহর কাছে দামি হয়ে যায়। দেশ-বিদেশের বিভিন্ন স্থান থেকে জামাতবদ্ধভাবে আল্লাহ্ ভক্ত বান্দারা এ কারণেই গাজীপুরের টঙ্গীর তুরাগ তীরে বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নিয়েছেন। আল্লাহকে খুশি করবেন এবং আখেরাতে নিজে খুশি থাকবেন। হজের পর মুসল্লিদের দ্বিতীয় বৃহত্তম সমাবেশ হচ্ছে এ বিশ্ব ইজতেমা। ইজতেমায় আসার কারণ জানাতে চাইলে চট্টগ্রামের এক মুসল্লি ইব্রাহীম আলী বলেন, প্রত্যক মুসলমানের ইমান ও আমল জরুরি। ইমান আমল ঠিক রাখার জন্য ইজতেমায় আসা। সৃষ্টিকর্তা আল্লাহ্ ইমান ও আমলের হিসাব নেবেন। ইজতেমায় তিন দিন ইমান ও আমলের আলোচনা হয়। এ ফিকির নিয়ে ইসলামের টানে লাখ লাখ মুসল্লিদের সঙ্গে ইমান ও আমল ঠিক করতে বিশ্ব ইজতেমায় এসেছি। আরেক মুসল্লি মো. হেদায়েত উল্লাহ বলেন, ইমান ও আমল ঠিক করতে তাবলীগ জামাতে শরিক হই। লাখ লাখ মুসল্লির সঙ্গে জামাত বদ্ধ হয়ে আল্লাহর ইবাদত বন্দেগি করছি। ১৬০ একর এলাকা জুড়ে বিস্তৃত টঙ্গীর তুরাগ তীরে বিশ্ব ইজতেমা মাঠে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে তাবলীগ জামাতের অনুসারী ধর্মপ্রাণ মুসল্লি অংশ নেন। তারা এখানে তাবলীগ জামাতের শীর্ষ আলেমদের বয়ান শুনে জামাত বদ্ধ হয়ে ইসলামের দাওয়াতী কাজ বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দেন। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের তাবলীগ অনুসারীরা মিলিত হন এ ইজতেমায়। ইজতেমা ময়দানের পশ্চিম পাশের মাঝামাঝি স্থানে নামাজ পড়ার মিম্বর ও বয়ান মঞ্চ এবং পশ্চিম-উত্তর কোণে দোয়া মঞ্চ, বিদেশি মেহমানদের আবাসন ও রন্ধনশালা তৈরি করা হয়েছে।



এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন

close