শিরোনাম :

প্রচ্ছদ » সম্পাদকীয়

আজ মহান শহীদ দিবস

রবি, ২১ ফেব্রুয়ারী'২০১৬, ১০:৩৫ পূর্বাহ্ন


আজ মহান শহীদ দিবস  
মহান শহীদ দিবস আজ। ১৯৫২ সালের এই দিনে রক্তের বিনিময়ে তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের মানুষ তাদের মাতৃভাষা বাংলাকে পাকিস্তানের অন্যতম রাষ্ট্র করার দাবিতে ঢাকার রাজপথে তাদের তাজা রক্ত ঢেলে দিয়েছিল। সালাম, রফিক, বরকত, জব্বার, শফিকের সেই আত্মত্যাগের মধ্য দিয়ে পাকিস্তানে বাংলা ভাষার রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি এসেছিল। সরকার বাধ্য হয়েছিল বাংলাকে পাকিস্তানের অন্যতম রাষ্ট্রভাষা করতে। কিন্তু তাতেই থেমে থাকেনি বাংলা মায়ের সন্তানরা। গণতন্ত্র ও স্বাধিকার আন্দোলনের মধ্য দিয়ে শুরু হওয়া গণআন্দোলনকে তারা পৌঁছে রক্তক্ষয়ী লড়াইয়ে। ১৯৭১ সালে ৯ মাসব্যাপী যুদ্ধে জন্মলাভ করে এক স্বাধীন দেশ। নাম যার বাংলাদেশ। যার রাষ্ট্র ভাষা বাংলা।
বর্তমান বিশ্বে বাংলাদেশ, ভারতের পশ্চিমবঙ্গ, আসাম, ত্রিপুরাসহ বিশ্বের প্রায় ৩৫ কোটি মানুষ বাংলাভাষী। একক ভাষাভাষী মানুষের সংখ্যার বিচারে বিশ্বেও পঞ্চমতম ভাষা বাংলা। শুধু তাই নয়, বাংলার দামাল ছেলেদের আত্মত্যাগের দিনটি আজ বিশ্ব মাতৃভাষা দিবস হিসেবে স্বীকৃত।
১৯৫২ সাল থেকে যে লড়াই শুরু হয়ে ছিল তা ছিল একটি দেশ থেকে আর একটি স্বাধীন দেশ হওয়ার লড়াই। আর ১৯৭১ সালের পর সেই লড়াই-ই পরিণত হয় বিশ্ব দরবারে একটি স্বাধীন রাষ্ট্রের মাথা উঁচু করে দাঁড়াবার লড়াইয়ে। মাথা উঁচু করে দাঁড়ানোর সেই লড়াইয়েও বাঙালি অনেক দূর এগিয়েছে। বাংলাদেশ আজ স্বল্প উন্নত দেশের তালিকা থেকে মধ্যম আয়ের দেশের তালিকায় পৌঁছেছে। তার লক্ষ্য উন্নত দেশের কাতারে উঠা। বাংলাদেশের শ্রমিকরা আজ নিজ দেশে ও বিদেশ বিভুইয়ে যে ভাবে ঘাম ঝরাচ্ছে তাতে সেই লক্ষ্য অর্জনও অসম্ভব নয়।
বর্তমানে দেশে একটি বিশেষ রাজনৈতিক পরিস্থিতি বিরাজমান— যেখানে গণতন্ত্র, নিরাপত্তা, অর্থনীতি ও উন্নয়ন ঝুঁকির মুখে। দেশের মানুষ জানে না এর শেষ কোথায় বা সমাধান কীভাবে হবে। একটি অজানা উৎকণ্ঠা জাতির মগজে ঠাঁই করে নিতে চাচ্ছে। যদিও সাধারণ মানুষ এই সৃষ্ট পরিস্থিতি ও রাজনৈতিক সঙ্কট দেখতে চায় না। তারা দেখতে চায় না বার্ন ইউনিটে যন্ত্রণাদগ্ধ আর্তনাদ, এই মৃত্যু ও ধ্বংসযজ্ঞ। তারপরও দিনের পর দিন স্থবির হয়ে আছে দেশের অর্থনীতির চাকা ও স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। আর এরই মধ্য দিয়ে পালিত হচ্ছে এবারের শহীদ দিবস। আমাদের বিশ্বাস এই সঙ্কট উত্তরণে শহীদ দিবসের চেতনা আমাদের গুরুত্বপূর্ণ পথ নির্দেশনা দেবে।




এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন

close