শিরোনাম :

প্রচ্ছদ » লাইফস্টাইল

উৎসবে ঘরের সাজ

সোম, ০৪ Jul'২০১৬, ১২:৪৪ পূর্বাহ্ন


উৎসবে ঘরের সাজ  
উৎসবে স্বাভাবিকের চেয়ে অতিথি আগমন বেশি হয়। মনে রাখবেন, বসার ঘরের অন্দরসাজ আমাদের রুচির প্রথম বহিঃপ্রকাশ। যেহেতু বসার ঘর বাড়ির অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অংশ, তাই সফিস্টিকেশনের সঙ্গে সঙ্গে কমফোর্টের বিষয়টা অত্যন্ত জরুরি। এ জন্য নিজের সঙ্গে ঘরেরও চাই পরিপাটি সাজ। যেকোনো সাজের মূল কথা পরিচ্ছন্নতা। ঘরের বেলায়ও তাই। উত্সব উপলক্ষে ঘরের সাজ নিয়ে এবারের আয়োজনে থাকছে কিছু পরামর্শ। লিখেছেন আফরোজা মোহনা
 
রঙের সঠিক ব্যবহার বাড়িয়ে দিতে পারে ঘরের সৌন্দর্য। মনে রাখবেন, উজ্জ্বল ও হালকা রং ঘর বড় দেখাতে সাহায্য করে। যদি ঘরে সূর্যের আলো কম ঢোকে তাহলে কোনোভাবেই দেয়ালে গাঢ় রং করাবেন না। তাতে ঘর আরও অন্ধকার দেখাবে। যদি গাঢ় রং করাতে চান তাহলে একটি দেয়ালে কমলা, লাল, হালকা নীল রং করে অন্য দেয়ালগুলোয় নিউট্রাল রং করান। পর্দার ডিজাইন অনেকটাই নির্ভর করে জানালা-দরজার ডিজাইনের ওপর। ছোট ফ্ল্যাটে বেশি ভারী পর্দা ব্যবহার না করাই ভালো। রিচ ফেব্রিকের পর্দা লাগালে ঘরে একটি আলাদা আমেজ আসে। আর মেঝেতে কার্পেট পাতলে ঘর অনেক বেশি এলিগেন্ট লাগে। বাজেট কম থাকলে শতরঞ্জি ব্যবহার করতে পারেন। ঘরের কর্নারগুলোতে রাখতে পারেন ইনডোর প্ল্যান্টস বিভিন্ন ধরনের ল্যাম্পশেড ও ফুলদানি। ঘরের ইন্টেরিয়র প্ল্যান করার আগে লাইটিংয়ের ব্যবস্থার ওপর বিশেষ নজর দেওয়া প্রয়োজন। আলো-ছায়ার ম্যাজিক তৈরি করতে চাইলে সাদা, লাল, কমলা, গোলাপি বিভিন্ন ধরনের লাইট ব্যবহার করুন। আর বিশেষ অংশ হাই লাইট করার জন্য স্পট লাইট লাগান।
 
যদি ড্রয়িংরুমের সোফার কভার পাল্টানোর ব্যবস্থা থাকে তাহলে ধুয়ে ফেলার চেষ্টা করুন। আর যদি না করা যায় তাহলে সোফার গদি বা কর্নারগুলো ভ্যাকুয়াম ক্লিনার দিয়ে পরিষ্কার করে নিন। ঘরে ঢুকেই সারাদিনের বন্ধ দরজা-জানালা খুলে দিন। ঘরে বাইরের আলো বাতাস ঢুকলে গুমোটভাব কেটে যায়। মেঝের কার্পেট সরিয়ে রুমে থাকা ধুলোবালি পরিষ্কার করে নিন। কার্পেটটি যদি সম্ভব হয় রোদে শুকিয়ে আনুন। সোফার সামনের সেন্টার টেবিলে যদি চা, কফি, পানি খাওয়ার গ্লাসের দাগ লেগে থাকে তাহলে লিক্যুইড ক্লিনার দিয়ে মুছে ফেলুন। স্টোর রুম কিংবা ছোট বারান্দা যেখানে ড্যাম্পের গন্ধ হয়, সেখানে মেঝেতে ব্লিচিং পাউডার ছিটিয়ে ১৫ মিনিট পর ঝাড়ু দিয়ে পরিষ্কার করে ফেলুন।
 
রান্নাঘরের খাবারের গন্ধ দূর করতে এক কাপ ভিনেগারের সঙ্গে ৮-১০টি লবঙ্গ দিয়ে চুলায় ফোটাতে থাকলে একসময় পাত্রের পানিতে ভিনেগার কমে আসবে, তখন গন্ধ দূর হবে। গ্যাস বার্নারের আশপাশ পরিষ্কার করার জন্য বেকিং পাউডার, ভিনেগার ও লেবুর রস পানিতে মিশিয়ে সেই পানি দিয়ে পরিচ্ছন্ন করে নিন।




এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন

close