শিরোনাম :

প্রচ্ছদ » দেশের খবর

সাইদ পরিচয়ে ঝিনাইদহে মেসে থাকতো নিবরাস

বৃহঃ, ১৪ Jul'২০১৬, ৯:১০ অপরাহ্ন


সাইদ পরিচয়ে ঝিনাইদহে মেসে থাকতো নিবরাস  
ঢাকার গুলশানে হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় জঙ্গি হামলায় অংশ নেয়া  নিবরাস ইসলাম ঝিনাইদহ সোনালীপাড়ার একটি ছাত্রাবাসে ৪ মাস অবস্থান করে ছিল বলে জানা গেছে।
 
ওই ছাত্রাবাসের চারটি রুমে ৮ জন ছাত্রের সঙ্গে সে থাকতো। তবে পুলিশ ও র‌্যাব এ ব্যাপারে কিছু জানে না বলে জানায়।
 
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, জঙ্গি হামলায় অংশ নেয়া নিবরাস ইসলামের ছবি প্রকাশ হওয়ার পর স্থানীয় কয়েকজন ছাত্র তাকে চিনতে পারে। প্রতিদিন ছাত্রবাসের পাশের একটি খেলার মাঠে সে ফুটবল খেলতো বলে জানিয়েছে ওই পাড়ার  ছাত্র নওরজামিন বর্ষণ।
 
ঝিনাইদহ শহরের হামদহ সোনালী পাড়া অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য কওছার আলীর বাড়ি ভাড়া নিয়ে একটি মেস করে ছাত্ররা। চার মাস আগে নিবরাস ইসলাম মেসের পাশের মসজিদের ইমামের মাধ্যমে মেসে ওঠে। ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ওই ৮ জন ছাত্র চলে যায়। তারপর থেকে আর ফেরেনি তারা।
 
ঝিনাইদহ সরকারি কেসি কলেজের ব্যবস্থাপনা বিভাগের  দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র নওরজামিন বর্ষণ জানান, তারা প্রতিনিয়ত ওই ছাত্রাবাসের পাশের একটি ফুটবল মাঠে খেলা করতো। ৪ মাস আগে নিবরাস নিজেকে সাইদ নামে পরিচয় দিয়ে ওই মাঠে যেত এবং  তাদের সঙ্গে খেলা করতো।
 
নিবরাস ইসলাম নিজেকে সাইদ পরিচয় দিয়ে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দেয়ার জন্য মেসে থাকতো বলে সবাইকে বলতো। সে ভাল ইংরেজি বলতে পারতো। গুলশান ঘটনার পর ছবি দেখে জানতে পারে এ সাইদই নিবরাস।
 
মেসের মালিক কাওসার আলীর স্ত্রী বিলকিস নাহার বলেন, ঈদের আগের দিন রাত ১টার দিকে আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর পরিচয় দিয়ে একদল লোক তাদের বাসায় আসে। তারা রাতা ৩টা পর্যন্ত বাড়ি ও মেস তল্লাশি করে।
 
বিলকিস নাহার আরো জানান, মসজিদের ইমাম রোকনুজ্জামান  দুজনকে মেসে তোলেন। তারা কি করতো বা কোথা থেকে এসেছিল  কিছু বলতে পারেন নি।




এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন

close