শিরোনাম :

প্রচ্ছদ » খেলাধুলা

আবার কলম্বো

বৃহঃ, ৩০ মার্চ'২০১৭, ১১:২৩ অপরাহ্ন


 আবার কলম্বো  
কলম্বো থেকে ডাম্বুলা প্রায় সাড়ে ছয় ঘন্টার বাস যাত্রা। বাংলাদেশে বিদেশি দলগুলো খুলনায় যেতে রাজি হয় না যশোর থেকে ঘন্টা দেড়েকের বাস যাত্রার কারণে। সেখানে বাংলাদেশ প্রায়শ শ্রীলঙ্কা, নিউজিল্যান্ড, জিম্বাবুয়ে গিয়ে এমন বাস যাত্রা করে!
 
তেমনই আরেক দফা সাড়ে ছয় ঘন্টা বাসে চড়ে ডাম্বুলা থেকে গতকাল কলম্বোতে ফিরলো বাংলাদেশ দল। আগের রাতে বৃষ্টিতে থমকে যাওয়া ম্যাচের পর হোটেলে ফিরে তেমন লম্বা বিশ্রামেরও সময় মেলেনি। ফলে বাসেই একটু চোখ বুজে নিলেন অনেকে।
 
এই ক্লান্তি, লম্বা বাস যাত্রা ছাপিয়ে দলের চাওয়া এখন একটাই—আগামী মাসের প্রথম দিনটাতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম সিরিজ জয় নিশ্চিত করা। কলম্বোর উদ্দেশ্যে রওনা দেওয়ার আগে একটি বাংলাদেশি সংবাদ মাধ্যমকে অধিনায়ক মাশরাফি বলেছেন, তাদের মাথায় সিরিজ জয় ছাড়া অন্য কোনো হিসেব নেই। 
 
শ্রীলঙ্কায় বাংলাদেশ দল এবার পা রেখে ছিলেই সবগুলো সিরিজে ইতিবাচক ফলাফলের আশায়।
 
শ্রীলঙ্কার সোনালী প্রজন্মের ক্রিকেটাররা আর প্রায় কেউ নেই। উল্টো দিকে বাংলাদেশ দল ছিল দারুণ ছন্দে। এই অবস্থায় বাংলাদেশের নামের পাশে ‘ফেবারিট’ তকমাও সেটে দিয়ে ছিল অনেকে। গল টেস্টে হেরে গিয়ে সেই আলোচনায় একটা ধাক্কা খায়। পরে প্রবল প্রতাপে তারা ফিরে আসে কলম্বো টেস্টে। সেখানে জিতে নিশ্চিত করে সিরিজ ড্র। আরেকবার বাংলাদেশ যখন কলম্বোতে ফিরলো দুটি ওয়ানডের পর, তখন এটা নিশ্চিত যে, ওয়ানডে সিরিজেও ড্র-এর কম কিছু হচ্ছে না। প্রথম ম্যাচ প্রবল প্রতাপের সাথে জিতেছে বাংলাদেশ। স্রেফ গুড়িয়ে দিয়েছে স্বাগতিকদের। দ্বিতীয় ম্যাচে অবশ্য রান বন্যা করে ছিল শ্রীলঙ্কা।
 
তাতে মনে হতে পারে, বাংলাদেশ বোধ হয় দ্বিতীয় ম্যাচে হার এড়াতে পেরে বেঁচেছে। কিন্তু খেলোয়াড়রা মনে করেন, উল্টোটাও সত্যি। এই বৃষ্টি কেড়ে নিয়েছে ওই দিনই বাংলাদেশের সিরিজ জয়ের সম্ভাবনা। অন্তত অধিনায়ক মাশরাফি বলছেন, তিনশ রান দেখেও তারা জয়ের আশা ছাড়েননি।
 
এই শ্রীলঙ্কাতেই ওয়ানডে সিরিজ শুরুর আগে একমাত্র অনুশীলন ম্যাচে সাড়ে তিনশ রান তাড়া করে প্রায় জয়ের কাছে চলে গিয়েছিল বাংলাদেশ। সে ম্যাচে তামিম-সাকিব ছিলেন না। মাশরাফি সেই উদাহরণ দিয়েই বলছিলেন, ‘স্কোর তিনশোর উপরে দেখেও আমি একটুও ঘাবরাইনি। উইকেট ছিল ব্যাটিং বান্ধব। আমরা সাকিব-তামিমকে ছাড়াই প্রস্তুতি ম্যাচে সাড়ে তিনশো করে ছিলাম। আর এ ম্যাচে তো ওরা দুইজনও ছিল। তাই আমার বিশ্বাস ছিল, ম্যাচ হলে জিততাম।’
 
অবশ্য চলে যাওয়া ম্যাচ নিয়ে আফসোস করে আর লাভ নেই। এখন কলম্বোতে বাংলাদেশের সামনে সুযোগ আছে ২-০ ব্যবধানে সিরিজটা জিতে নেওয়ার। যদিও ৩-০ ব্যবধানে জিতলে র্যাংকিংয়ে যে উন্নতিটা হতো, সেটা এখন আর হবে না। এখন বড় জোর বাংলাদেশ সাত নম্বরে নিজেদের অবস্থানটা আরেকটু শক্ত করতে পারবে। বিশ্বকাপ সামনে রেখে সেটাও কম জরুরি নয়। তাই চ্যালেঞ্জটা আরেকবার কলম্বো জয়।
 
কলম্বোতেও জিততে গেলে বাংলাদেশকে রানের বন্যা করতে হবে, এমনটাই মনে করছেন মাশরাফি। তার খোঁজ-খবর বলছে, এখানেই অনেক রান হবে। ফলে দায়িত্বটা ব্যাটসম্যানদেরই নিতে হবে, ‘যতটুকু খবর নিয়ে জেনেছি শেষ ম্যাচের উইকেটও ব্যাটিং বান্ধব হবে। ওই মাঠে ২৮০-২৯০ চেজ করেও জেতা সম্ভব।




এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন

close